আইপিএলের ১৮ কোটি দিয়ে কিনতে চাইলেন কুকুরের খেলনা

শুরুটা হয়েছিল তাঁর ঝড় তুলে। গতির ঝড়ে ব্যাটসম্যানদের কাবু করতে গিয়ে অবশ্য বারবার নিজেকে চোটে ফেলছিলেন প্যাট কামিন্স। সেটা থেকে বাঁচতে গতি কিছুটা কমিয়ে এনেছেন কামিন্স, সেটাই তাঁকে বিশ্বের অন্যতম সেরা বোলার বানিয়ে দিয়েছে। বর্তমানে টেস্টে বিশ্বের সেরা বোলারকে নিয়ে এবারের আইপিএলে টানাটানিও হয়েছে বেশ। দুই দলের টানাটানির মাঝে শেষ দিকে এসে দাও মেরেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

এবারের আইপিএলের নিলামে সবচেয়ে বেশি দাম উঠেছে কামিন্সের। দিল্লি ক্যাপিটালস ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু নিলামে ১৫ বার করে ডাক তুলেও তাঁকে পায়নি। শেষ দিকে দুবার ডেকেই ১৫ কোটি ৫০ লাখ রুপিতে (বাংলাদেশি মূল্যমানে ১৮ কোটি টাকার বেশি) কলকাতা নিয়ে নিয়েছে এই অস্ট্রেলিয়ান পেসারকে। আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে দামি বিদেশি ক্রিকেটার এখন কামিন্স।

এ পরিমাণ অর্থ কীভাবে খরচ করবেন কামিন্স সেটা অবশ্য এখনো ঠিক করে উঠতে পারেননি। তাঁর বান্ধবী অবশ্য এর মাঝেই সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছেন অর্থ ব্যয়ের, ‘আমি জানি না কী করব (এ অর্থ দিয়ে)। আমার বান্ধবী শুনেই অবশ্য বলেছে, “এবার কুকুরের জন্য আরও বেশি খেলনা কিনতে পারব।” সে তার চাহিদা ঠিক করে নিতে পেরেছে।’

আইপিএলের ইতিহাসের সবচেয়ে দামি বিদেশি ক্রিকেটার হওয়ার মুহূর্তটি স্বচক্ষেই দেখেছেন কামিন্স। এটাও অবশ্য বিনয়ী কামিন্সে কোনো পরিবর্তন আনতে পারেনি, ‘ঘরেই ছিলাম। একটা স্ট্রিমিং খুঁজে পেয়ে দেখা শুরু করলাম এবং নিলামের ওই অংশটা দেখেছি। আমার তো বিশ্বাসই হচ্ছিল না কী দেখছি। আমি ভাগ্যবান যে আমার আশপাশে ভালো কিছু মানুষ আছে। দলের সবাই ভালো আর পরিবার আর বন্ধু তো আছেই। আমি এখনো ক্রিকেট খেলি কারণ আমি এটা ভালোবাসি এবং এর সংশ্লিষ্ট সবকিছু ভালোবাসি। তাই আমি ভাগ্যবান যে এসব হচ্ছে। কিন্তু আশা করি এটা আমাকে বদলাবে না।’

Leave a Reply