বাংলাদেশ না গেলে আইসিসিকে ব্যবস্থা নিতে বলবে পাকিস্তান


বাংলাদেশ দল পাকিস্তানে না গেলে ব্যবস্থা নেবে পিসিবি। ছবি: এএফপিবাংলাদেশ পাকিস্তানে গিয়ে টেস্ট খেলতে চাচ্ছে না। এ তথ্য বিস্মিত করেছে পাকিস্তানকে। এর মাঝেই দলটির কোচ মিসবাহ-উল-হক টেস্ট না খেলে টি-টোয়েন্টি খেলতে চাওয়ার পেছনে কোনো যৌক্তিক কারণ খুঁজে না পাওয়ার কথা জানিয়েছেন। আজ আরেকটু কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে পাকিস্তান। ইঙ্গিতে জানিয়ে দিয়েছে যদি জানুয়ারির পূর্বনির্ধারিত সিরিজে টেস্ট খেলতে না চায় বাংলাদেশ, তবে আইসিসিকে ব্যবস্থা নিতে বলবে পাকিস্তান।

সফর নিয়ে এখনো সরাসরি বিসিবির সিদ্ধান্ত জানেননি বলে জানিয়েছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান এহসান মানি। ক্রিকইনফোর সুবাদে বাংলাদেশের অনিচ্ছার কথা জেনেছেন, তবে এ নিয়ে খুব একটা চিন্তিত নন। তাঁর সাফ কথা পাকিস্তান যে নিরাপদ সেটা শ্রীলঙ্কা সফর করে জানিয়ে দিয়েছে। এখন পাকিস্তান সফর বাতিল করতে চাইলে আইসিসির কাছে বিষয়টি নিয়ে যাবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন মানি, ‘আমাদের পূর্ণ অধিকার আছে আইসিসির কাছে এ সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তোলার। আমি এ ব্যাপারে কিছু বলতে চাই না, কারণ বিসিবির সঙ্গে আমাদের কথোপকথন এখনো চলছে। তারা যখন আনুষ্ঠানিকভাবে আমাদের কোনো সিদ্ধান্ত দেবে, তখন আমরা দেখব কী করা যায়। বাংলাদেশের নারী দল পাকিস্তানে এসেছে, ওদের অনূর্ধ্ব-১৬ দলও এসেছে। এবং ওরা সবাই সন্তুষ্ট হয়েই ফিরেছে। তাই ওদের মনে কোনো সন্দেহই থাকা উচিত নয় যে, যদি খেলতে চায় তবে পাকিস্তানেই খেলবে।’

পিসিবির তথ্যানুযায়ী বিসিবির সঙ্গে গত সপ্তাহেই এ ব্যাপারে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছে পিসিবি। কিন্তু বিসিবি নাকি কোনো জবাব দেয়নি তাদের। এ প্রসঙ্গে আজ সংবাদ সম্মেলনে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন পাকিস্তানের টেস্ট অধিনায়ক আজহার আলী। তাঁর প্রশ্ন এশিয়ার দেশ হয়ে যদি বাংলাদেশই পাকিস্তানকে সহায়তা করতে না চায় তবে কারও জন্যই ব্যাপারটা ভালো হবে না, ‘আমি নিশ্চিত পিসিবি ব্যাপারটা দেখছে, কিন্তু না আসার কোনো কারণ তো দেখি না। এটা আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ। অনেক দলই এখানে এসে খেলে গেছে। বেশ কিছু পিএসএলের ম্যাচ খেলেছি। বিশ্ব একাদশ খেলেছে। অনেক গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় এখানে খেলেছে। আর শ্রীলঙ্কা দল এসে একটা নয় দুটি টেস্ট খেলেছে। এশিয়ার দল হয়ে যদি একে অপরকে সাহায্য না করি, এশিয়ার বোর্ড যদি অন্যকে সাহায্য না করি তাহলে কোথায় গিয়ে থামব আমরা?’

বোর্ডের প্রধানের মতোই আজহারের ধারণা, বাংলাদেশের পাকিস্তানে না যাওয়ার কোনো কারণ নেই। আর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরও বাংলাদেশ সফর বাতিল করতে চাইলে আইসিসির হস্তক্ষেপ কামনা করছেন আজহারও, ‘আমরা এমনিতেও কম টেস্ট খেলি, আমি নিশ্চিত বাংলাদেশও খুব বেশি টেস্ট খেলে না। আমাদের তাই একে অপরকে সহযোগিতা করতে হবে। এবং আমি আইসিসিকে বলব এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে, কারণ এখানে না আসার কোনো কারণ নেই। এখন সবকিছু খুব স্বাভাবিক চলছে, এবং দর্শক মাঠে আসছে। সবকিছু ভালোভাবে চলছে এবং আমরা বেশ মানসম্পন্ন ক্রিকেট দেখছি এখন। আমার মনে হয় না কোনো অজুহাত থাকতে পারে না আসার।’





Source from @ www.prothomalo.com

Leave a Reply